প্রধান পৃষ্ঠপোষকের বানী

সেতার বাদনের শ্রোতা, ভক্ত, শিল্পী, আয়োজক সহ সবাইকে আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা। আমাদের সেতার উদ্যোগটি আপনার দৃষ্টি আকর্ষণ করায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।

আপনারা হয়তো ইতোমধ্যে জেনেছেন, আমরা ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশন থেকে, গুরুকুলের আর্ট কালচারের ১৪ টি প্লাটফর্মের পৃষ্ঠপোষকতা করছি। তার মধ্যে সেতার একটি।

প্রধান পৃষ্ঠপোষকের বানী

যারা শুদ্ধ গান বাজনার ভক্ত, তাদের কাছে সোলো ইন্সট্রমেন্ট হিসেবে সেতার খুবই প্রিয়।
এখন ভারতীয় উপমহাদেশের বাইরেও সেতার অনেক জনপ্রিয় হয়েছে।
তাই সেতার বাদক হিসেবে ক্যারিয়ার গড়ার একটা দারুণ সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

আমাদের প্রত্যাশা, বাংলাদেশ থেকে বিশ্বমানের পেশাজীবী সেতার শিল্পী তৈরি করা।
সেই সাথে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে আরও সেতার বাদনের রসিক শ্রোতা তৈরি করা।

এজন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি নিয়মিত অনলাইন ক্লাস ও টিউটোরিয়ালের।
যেগুলো থেকে শিক্ষার্থীরা সেতার বাদনের টেকনিক গুলো খুব সহজে রপ্ত করতে পারবে।
নিয়মিত ক্লাসের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের বিশেষ অনুরোধেও ক্লাস তৈরি হচ্ছে।
তৈরি হচ্ছে সেতারের নানা রকম পারফর্মেন্স।
আর এই সব কিছুই ফ্রি, আমাদের পক্ষ থেকে উপহার।

আমরা পেশাজীবী শিল্পী তৈরির জন্য, এবছর থেকে সেঁতার বাদনে একটি বাৎসরিক বৃত্তি দিচ্ছি।
যার অর্থমূল্য আড়াই লক্ষ টাকা। এই অর্থ শিক্ষার্থীর প্রয়োজনীয় তালিম বা ঘরে বসে রেয়াজ অথবা গবেষণা করার জন্য দেয়া হবে।

যারা সিরিয়াস মিউজিসিয়ান হতে চান, এরকম অনেক মেধাবী ছেলে/মেয়েদের সঠিক তালিম পাবার ব্যবস্থা নেই।
অনেকের আবার তালিম থাকলেও, পেশার চাপে ঘরে বসে রেয়াজ করার স্বাধীনতা নেই।
কেউ হয়তো সেতার বিষয়ক কোন গবেষণা করতে চাচ্ছেন, সেটার জন্য ফান্ড নেই।
এমন প্রার্থীদের জন্যই এই বৃত্তি।

আমাদের ঘোষনাগুলোর দিকে নজর রাখুন। সেখানে উল্লেখিত নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করুন।
আপনাদের আবেদন, আমাদের বিশেষজ্ঞ প্যানেল যাচাই বাছাই করে প্রার্থী চূড়ান্ত করবেন।

প্রধান পৃষ্ঠপোষকের বানী

আমরা বিশ্বাস করি গুণীর কদর না করলে গুণীর জন্ম হয় না।
তাই আমরা প্রতি বছর বাংলাদেশি সেতার শিল্পীদের মধ্য থেকে একজনকে সম্মাননা প্রদান করবো।
সম্মাননার সাথে ২ লক্ষ টাকা পরিমাণ অর্থ দেয়া হবে।
আমাদের গুণী শিল্পীদের সন্ধান অব্যাহত রয়েছে। তাছাড়া আপনারাও যদি মনে করেন এমন যোগ্য কারও নাম আমরাদের দৃষ্টির বাইরে আছে। তার নাম আমাদের আর্টিকেলের নিচে কমেন্ট বা সামাজিক মাধ্যমে মেসেজ দেবার মাধ্যমে প্রস্তাব করতে পারেন।

আশা করি আমাদের সবার চেষ্টায়, বাংলাদেশ থেকে অনেক আন্তর্জাতিক মানের সেতার শিল্পী, গবেষক তৈরি করতে পারবো। যারা দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনবেন।
আপনার পরিচিত আগ্রহীদের এই বার্তাটি পৌঁছে দেবার অনুরোধ রইলো।

সবাই ভালো থাকবেন।

 

 

শুভেচ্ছান্তে,

ড. সীমা হামিদ

প্রধান পৃষ্ঠপোষক, সেতার গুরুকুল

সাভাপতি, ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশন

Leave a Comment